... গার্ড ছিলেন একজন নরওয়েজিয়ান মেয়ে, যাকে ১৯৯৪ সালের ১৫ অক্টোবর ট্রনহেইমে...
 

সিলজে মারি রেডারগার্ড (২৬ জুন ১৯৮৯ - ১৫ অক্টোবর ১৯৯৪)[1] ছিলেন একজন নরওয়েজিয়ান মেয়ে, যাকে ১৯৯৪ সালের ১৫ অক্টোবর ট্রনহেইমের কাছে রোস্টেন গ্রামে দুই ছেলে হত্যা করে।[2] পাঁচ ও ছয় বছর বয়সী ছেলেরা রেডারগার্ডকে নগ্ন করে মারধর করে। তারা তাকে বিবস্ত্র করে লাথি মেরে, পাথর নিক্ষেপ করে শেষপর্যন্ত বরফে ফেলে দেয়। তাদের আঘাত ও বরফের তীব্র ঠাণ্ডার কারণে অবোষ্ণতা তথা হাইপোথার্মিয়ায় প্রভাবে সিলজে রেডারগার্ড মৃত্যুবরণ করে। নরওয়ের আদালতে হত্যাকারী ছেলেদের মনস্তাত্ত্বিক মূল্যায়নের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। কারণ, তারা ছিল মাত্র পাঁচ-ছয় বছর বয়সী নাবালক। নরওয়েজীয় আইন ১৫ বছরের কম বয়সী নাবালকদের শাস্তির অনুমতি দেয় না।[3] নাবালক হওয়ায় সেই ছেলেদের নাম গণমাধ্যমে প্রকাশ করা হয়নি।

প্রাথমিকভাবে অপরাধটি যৌন-নিপীড়ক-পিতামাতার স্বভাবের বলে বিশ্বাস করা হয়েছিল, কারণ রেডারগার্ডের কাপড় সরানো হয়েছিল এবং তার লাশ তার পরিবারের বাড়ির কাছে পাওয়া গিয়েছিল। [4] পুলিশ জানার আগেই রেডারগার্ডের বাবা-মাকে অপরাধী ছেলেদের মা ছেলেদের অপরাধ সম্পর্কে জানিয়ে দেয়।[5]

এই হত্যাকাণ্ডের পুরোপুরি কোন উদ্দেশ্য ছিলনা। যদিও একটি ছেলে একজন গোয়েন্দাকে বলেছিল যে প্রাথমিক তদন্তের সময় "আমরা তাকে মারধর করেছি যতক্ষণ না সে কান্না বন্ধ করে দেয়"। সম্ভবত তারা কেন তাকে মেরে ফেলে তার আংশিক কারণ ব্যাখ্যা করেছে।[6]

১৯৯৪ সালের ১৮ অক্টোবর পে টেলিভিশন চ্যানেল টিভি ৩ শিশুদের লক্ষ্য করে নির্মিত টেলিভিশন মাইটি মর্ফিন পাওয়ার রেঞ্জার্স এবং টিনএজ মিউট্যান্ট নিনজা টারটল সম্প্রচার স্থগিত করা হয়েছিল। কারণ, ধরণা করা হয়ে এই প্রোগ্রামগুলোতে থাকা কাল্পনিক সহিংসতা শিশুদের মধ্যে ক্ষতিকর প্রভাব ফেলতে পারে। সেই সময় নরওয়ের প্রধানমন্ত্রী গ্রো হারলেম ব্রুন্ডল্যান্ড মন্তব্য করেছিলেন যে "নরওয়েবাসীদের এই ধরনের "মুক্ত বাজার" সহিংসতা বাণিজ্যিক নেটওয়ার্কদ্বারা সম্প্রচারের অনুমতি দেওয়ার আগে দুবার চিন্তা করা উচিত।"[7]

উভয় ছেলেকে নিয়মিত ভাবে শিশু সুরক্ষা মূলক পরিষেবাগুলির অধীনে রাখার ব্যবস্থা করা এবং প্রাপ্তবয়ষ্ক তথা ১৮ বছর বয়স না হওয়া পর্যন্ত পরামর্শ নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। হত্যাকারী দুজনের মধ্যে একটি ছেলে বর্তমানে মাদকাসক্তি এবং গৃহহীনতায় ভুগছে। মনে করা হয় যে, এই হত্যাকাণ্ডে তার ভূমিকার কারণেই বর্তমানে তার এই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। [8]

এই মামলাটি জেমস বুলগারের হত্যার সাথে তুলনা করা হয়েছে, যা বিশ মাস আগে যুক্তরাজ্যে ঘটেছিল। [9] [10]

আরো দেখুন

তথ্যসূত্র

  1. "Tiller kirkegård"byblis.net (নরওয়েজীয় ভাষায়)। ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  2. "The Norway town that forgave and forgot its child killers | James Bulger murder | The Guardian"। সংগ্রহের তারিখ ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১ 
  3. Karacs, Imre (২০ অক্টোবর ১৯৯৪)। "Something died with Silje"The Independent। সংগ্রহের তারিখ ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  4. https://amp.theguardian.com/theguardian/2010/mar/20/norway-town-forgave-child-killers
  5. https://amp.theguardian.com/theguardian/2010/mar/20/norway-town-forgave-child-killers
  6. https://amp.theguardian.com/theguardian/2010/mar/20/norway-town-forgave-child-killers
  7. "Power Rangers' show faulted in girl's brutal playground death"Tampa Bay Times (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০১-১৫ 
  8. https://amp.theguardian.com/theguardian/2010/mar/20/norway-town-forgave-child-killers
  9. James, Erwin; MacDougall, Ian (২০ মার্চ ২০১০)। "The Norway town that forgave and forgot its child killers"The Guardian। সংগ্রহের তারিখ ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  10. Lusher, Adam (৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮)। "James Bulger murder: How failure to deal with killer Jon Venables was the latest episode in a tragedy shaming a nation"The Independent। সংগ্রহের তারিখ ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 




  Go to top  

This article is issued from web site Wikipedia. The original article may be a bit shortened or modified. Some links may have been modified. The text is licensed under "Creative Commons - Attribution - Sharealike" [1] and some of the text can also be licensed under the terms of the "GNU Free Documentation License" [2]. Additional terms may apply for the media files. By using this site, you agree to our Legal pages [3] [4] [5] [6] [7]. Web links: [1] [2]